Atheist in Bangladesh

‘সংখ্যালঘু উগ্রবাদী মুছলিম’ বিষয়ক মিথ

অনেক সময়ই মিথ ও মিথ্যের মধ্যে কোনও তফাত থাকে না। পৃথিবীর অধিকাংশ মুছলিম উগ্রবাদী নয় – প্রচলিত এই আপ্তবাক্যটি বাস্তবে একটি মিথ। অর্থাৎ মিথ্যে।
শুরুতেই বলে রাখা উচিত: ‘জঙ্গি’ ও ‘উগ্রবাদী’ – এই শব্দদু’টি গুলিয়ে ফেলা চলবে না। মনে রাখতে হবে, প্রত্যেক জঙ্গিই উগ্রবাদী, তবে প্রত্যেক উগ্রবাদী ব্যক্তি জঙ্গি নয়। কারণ জঙ্গি হচ্ছে সেই ব্যক্তি, যে উগ্রবাদী তো বটেই এবং সহিংসতায়ও সক্রিয় অংশ নেয়। আর উগ্রবাদী বলা হয় তাকে, যে উগ্রপন্থার প্রকাশ্য/পরোক্ষ/নীরব সমর্থক, কিন্তু নিজে সহিংসতায় অংশ নেয় না, তা যে-কারণেই হোক না কেন।
চোরের শাস্তি – হাত কেটে ফেলা, ব্যভিচারের শাস্তি – পাথর ছুঁড়ে হত্যা, ইছলামত্যাগের শাস্তি – মৃত্যুদণ্ড… এসব যারা সমর্থন করে, তারা জঙ্গি নয় বটে, তবে নিশ্চিতভাবেই উগ্রবাদী। একশোবার উগ্রবাদী!
এ কথা অবশ্যই সত্যি যে, মুছলিমদের ভেতরে জঙ্গিরা সংখ্যালঘু। এ নিয়ে বিতর্কের কোনও অবকাশও নেই। তবে মনে জিহাদ-পুষে-রাখা, সন্ত্রাস-সহিংসতার প্রতি সমর্থন-পোষণ-করা বা বর্বর শরিয়া আইন কায়েমের-স্বপ্ন-দেখা মুছলিম উগ্রবাদীরা কিন্তু বিপুলভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠ। কীভাবে? একেবারে হিসেব কষে হাতে-কলমে প্রমাণ করে দেয়া হয়েছে এই ভিডিওতে। নাম এসেছে বাংলাদেশেরও।
ভিডিও লিংক ।https://www.youtube.com/watch?v=g7TAAw3oQvg

Athiest in Bangladesh